বিনোদন

অবশেষে ছেলের নাম বিতর্কের অবসান যেভাবে ঘটালেন কারিনা

বিনোদন ডেস্ক: কারিনা কাপূর ক্যারিয়ারের মধ্যগগনে থাকাকালীন বিয়ে করেন সাইফ আলি খানকে। কাজের পিছনে ছোটা নয়, বরং নিজের ইচ্ছেমতো তাঁর জীবনকে সাজিয়েছেন কারিনা। বিয়ের চার বছরের মাথায় ২০১৬-য় তাঁদের প্রথম সন্তান তৈমুর আলি খানের জন্ম। আগে বলিউডে চল ছিল অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পরই কাজ কমিয়ে দেওয়ার। তবে সেই প্রথা ভেঙেছেন কারিনা।

তৈমুর গর্ভে থাকাকালীন চুটিয়ে কাজ করেছেন তিনি। এখন বলিপাড়ার নায়িকাদের পথপ্রদর্শক তিনি। তবে ছেলে তৈমুরের জন্মের পর থেকে বার বার সমালোচনায় বিদ্ধ হয়েছেন সাইফ-কারিনা। এর কারণ ছেলের নাম। অভিনেত্রীর পুত্রসন্তানের নামকরণে চটে যান গোঁড়া হিন্দুত্ববাদীরা। তাঁদের মতে, তৈমুর লঙ্গের মতো অত্যাচারী নৃপতির নামে নাম রাখা উচিত হয়নি কারিনা ও সাইফের। সমালোচনার হাত থেকে রেহাই পায়নি ছোট্ট তৈমুরও। প্রথম মা হওয়ার অনুভূতির পাশপাশি ছেলেকে নিয়ে এমন সমালোচনা সামলেছেন কী ভাবে, এত বছর পর জানালেন কারিনা?

ছোটবেলা থেকেই প্রচারের আলোয় রয়েছে তৈমুর। তারকা সন্তানদের মধ্যে কারিনার বড় ছেলে তৈমুরের ছবি সব থেকে বেশি প্রকাশ্যে এসেছে। আলোকচিত্রীরা তৈমুরের জন্মের পর থেকে ক্যামেরা তাক করে রেখেছিলেন ওই খুদের দিকে। প্রতিনিয়ত সন্তানের নাম নিয়ে সমালোচনা কতটা অসহনীয় ছিল কারিনার কাছে? সম্প্রতি সেটাই জানালেন অভিনেত্রী।

মুম্বাইয়ের এক অনুষ্ঠানে এসে খোলামেলা আড্ডার মেজাজে দেখা গেল কারিনা কাপূরকে। তাঁর কথায়, ‘‘আমার মনে হয় কোনও মা বা তাঁর সন্তানকে এমন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে।’’ এত বছর কেটে গেলেও এখনও ধন্দে অভিনেত্রী, কেন তাঁদের সঙ্গে এমনটা হয়েছিল। কারিনা বলেন, আমি এখনও জানি না, এর পিছনে কারণ কী ছিল। কাউকে অসন্তুষ্ট করার জন্য কোনও কিছু করা হয়নি। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের দেশে বাক্‌স্বাধীনতার অধিকার রয়েছে। শুধু তাই নয়, যার যা খুশি সেটা সে সেটা করতে পারে। আমি ও সাইফ সেটাই বিশ্বাস করে এসেছি।’’

পাশাপাশি, কারিনা স্পষ্ট জানান তাঁর ছেলের নামের সঙ্গে অত্যচারী শাসক তৈমুর লঙ্গের কোনও সম্পর্ক নেই। এই নাম নেওয়া হয়েছে সাইফ আলির ছোটবেলার এক বন্ধুর নামের অনুসরণে। কারিনা বলেন, ‘‘আমরা যখন ছেলের নামকরণ নিয়ে ভাবছি, সেই সময় সাইফ জানায় তার ছোটবেলার এক বন্ধুর নাম তৈমুর। সাইফ সব সময় বলত, এই নামটা ওর খুব পছন্দ। যদি আমাদের ছেলে হয়, তা হলে বন্ধুর নামে ছেলের নাম তৈমুর রাখবে।’’ যদিও ছেলে তৈমুরের নাম নিয়ে যখন বিতর্ক চলছিল সারা দেশে, সেই সময় সাইফ জানান তাঁর ছেলের নামের মানে ‘ইস্পাত’ বা ‘লোহা’। এর সঙ্গে শাসক তৈমুরের কোনও সম্পর্ক নেই।

তবে ছেলের নাম নিয়ে যখন প্রায় ঝড় উঠেছে বিভিন্ন জায়গায়, তা কারিনার কাছে অপ্রত্যাশিত ছিল বলেই জানান অভিনেত্রী। কারিনার কথায়, ‘‘সেই মুহূর্তেই আমি সিদ্ধান্ত নিই, আমার সন্তানের যে রকম ইচ্ছে নাম আমি দেব। ততক্ষণ পর্যন্ত আমার কিছু যায় আসে না, যতক্ষণ আমার সন্তান ভাল আছে। আমরা ভাল আছি। দুনিয়ার মানুষ যা ইচ্ছে বলুক, যেভাবে ইচ্ছে ট্রোল করুক, আমি কান দেব না।’’

এবি/ওশিন

Copyright © Amarbangla
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

কাজী সাইফ আহমেদের ঈদের নাটক ‘গ্রেট টাউট’

সাজু আহমেদ: এই প্রজন্মের অত্যন্ত মেধাবী নির্মাতা কাজী সাইফ আ...

ভারত সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্র...

ভারত সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্র...

কাজী সাইফ আহমেদের ঈদের নাটক ‘গ্রেট টাউট’

সাজু আহমেদ: এই প্রজন্মের অত্যন্ত মেধাবী নির্মাতা কাজী সাইফ আ...

বাংলাদেশের বোলিং চ্যালেঞ্জিং

ক্রীড়া ডেস্ক: গত নভেম্বরের কথা। ব...

আগামী ২৬ জুন খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঈদুল আজহা ও গ্র...

বিষাক্ত মদপানে ভারতে নিহত ৩৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে বিষাক্ত...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
খেলা