ছবি-সংগৃহীত
লাইফস্টাইল

রেগে গেলেন তো মোটা হলেন!

লাইফস্টাইল ডেস্ক: আমাদের পরিবারে ও সমাজে কিছু মানুষ কারণে-অকারণে সারাক্ষণ রেগে থাকেন। অনেকক্ষেত্রে মূলত তারা নিজেও বুঝতে পারেন না, যে তারা হুটহাট রেগে যাচ্ছেন।

রাগ বা ক্রোধ একটি মানসিক অবস্থা এবং এর সাথে শরীরের সম্পর্ক রয়েছে। যা মানুষের হরমোনকে প্রভাবিত করে। আর ক্রোধের কারণে হরমোনে যে প্রভাব পড়ে তার ফলে মোটা হওয়ার সম্ভাবনা বা আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। এক্ষেত্রে বলা যেতেই পারে রেগে গেলেন তো মোটা হলেন।

রাগ করার কারণে দেহের রক্তচাপ, হৃদস্পন্দন বেড়ে যেতে পারে। ফলে যে কারো জীবনে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। এসবের পাশাপাশি ওজন বৃদ্ধি পাওয়ার ঝুঁকি দীর্ঘমেয়াদে আপনার ক্ষতি করবে।

রাগ দুই ধরনের দেখা যায়। ক্লিনিক্যাল বা মাঝেমাঝে রেগে যাওয়া- এ ধরনের ক্রোধ স্বাভাবিক ও প্রকৃতিগত। এ ধরনের ক্রোধ অনুভূতি যে কারোরই আসে এবং চলেও যায়। আর দীর্ঘস্থায়ী রাগ- যা ব্যক্তির মনে দীর্ঘক্ষণ থাকে এবং চরিত্রগত দিক থেকে ভয়ংকর হয়ে থাকে।

রাগের সঙ্গে ওজন বাড়ার সম্পর্ক:

প্রকৃতপক্ষে রাগ ক্ষুধা বৃদ্ধি করে। রেগে গেলে অনেকেই একসঙ্গে অধিক খাওয়া-দাওয়া করে থাকেন। আবার ক্রোধের কারণে অনেকেই দীর্ঘক্ষণ না খেয়েও থাকেন। ওজন বাড়ার ঝুঁকি দুই ক্ষেত্রেই রয়েছে।

ভারতের ওকহার্ড হসপিটালের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. সোনাল আনন্দ বলেন, এটি বিবর্তনের একটি অংশ। একটি শিশু যখন কাঁদে তখন বেশিরভাগ সময় সন্তানের ক্ষুধা না থাকলেও কান্না থামানোর উপায় হিসেবে মা তাকে কিছু একটা খেতে দেন।

এই ঘটনাগুলো আমাদের মস্তিষ্কে এমনভাবে ঝেঁকে বসেছে যে, আমরা যখন রেগে যাই বা দুঃখিত হই তখন তা মোকাবিলার ব্যবস্থা হিসেবে খাবার গ্রহণ করি।

ডা. সোনাল আনন্দ বলেন, রাগ একটি প্রবৃত্তিজনিত ব্যপার একইভাবে খাওয়াও তাই। একই মস্তিষ্কে যখন রাগ কাজ করে তখন এর সমাধান হিসেবে আমরা খাবার বেছে নেই। ফলে ওজন বাড়ে।

ভারতীয় এই মনোচিকিৎসকের কথায় ডায়েটিশিয়ানরাও সম্মতি দিচ্ছেন।

ইন্ডিয়ার পরশ হসপিটালের ডায়েটিশিয়ান ডা. আশিমা চোপড়া বলেন, হ্যাঁ, রাগ ওজন বাড়াতে পারে। যখন কেউ রেগে যায় তখন শরীর থেকে কর্টিসল নামক হরমোন নির্গত হয়। এই হরমোনের ফলে আপনি হয় মারাত্মক ক্ষুধা অনুভব করবেন নতুবা একেবারেই ক্ষুধা লাগবে না।

ডা. আশিমা চোপড়া বলেন, যখন প্রচণ্ড ক্ষুধা লাগবে তখন আপনার হরমোন শুধুমাত্র উচ্চ কার্বস ও শর্করাজাতীয় খাবারেই নিঃসরণ হওয়া বন্ধ হবে। অন্যান্য স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খেলেও আপনার ক্ষুধা নিবারণ হবে না।

বস্তুত, শর্করা জাতীয় খাবার ছাড়া অন্যান্য স্বাস্থ্যসম্মত খাবার আপনার মেজাজ আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। আর শর্করা জাতীয় খাবার অধিক গ্রহণ করলে ওজন বাড়বেই। তথ্যসূত্র: হেলথশটসডটকম অবলম্বনে

এবি/ এইচএন

Copyright © Amarbangla
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

গবিতে প্রতিবন্ধিতার কারণ শীর্ষক সেমিনার

ইউনুস রিয়াজ, গবি প্রতিনিধি: সাভার...

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলায় ঢাকার উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : পররাষ্ট্রমন্ত্...

ডেঙ্গু রোগের লক্ষণসমূহ

লাইফস্টাইল ডেস্ক: ডেঙ্গু এডিস মশা...

পাকিস্তান সফরের ইচ্ছা কোহলির

ক্রীড়া ডেস্ক: আইসিসি ও এসিসির টুর...

এমপি আনোয়ারুল আজিমের অবস্থান মুজাফফরাবাদে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতে চিকিৎসা ন...

বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক দিবে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতির পিতা বঙ্...

বৃক্ষ সংরক্ষণ বিষয়ক গবেষণা বৃদ্ধি হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরিবেশ, বন ও জল...

ইরানি প্রেসিডেন্ট রাইসির বর্ণাঢ্য জীবন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের প্রেসিড...

রাজস্ব আহরণে করদাতাকে পুরস্কৃত করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্থ প্রতিমন্ত্...

ইরানের নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলী বাগেরি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: হেলিকপ্টার বিধ...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
খেলা